ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণ করা হয় কিভাবে? চলুন জেনে নেয়া যাক

আমরা আইলা, নার্গিস, রোয়ানু ইত্যাদি ঝড়ের নামের সাথে পরিচিত। নতুন ঘূর্ণিঝড় আসতে যাচ্ছে ফণি- এটির নামকরণ বাংলাদেশের করা। আজকে চলুন জানার চেষ্টা করি ঘূর্ণিঝড়গুলোর নামকরণ কিভাবে করা হয় এবং কোথায় এই নামগুলো আমরা পেতে পারি। বিশ্ব আবহাওয়া কেন্দ্র বা, World Meteorological Organization এর নামের তালিকার একটি ছবিও আপনাদের দেখাবো।

ঘূর্ণিঝড় এর নাম কিভাবে দেয়া হয়?

সারা বিশ্বের আবহাওয়া বিষয়ক একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেখান থেকে পৃথীবির  বিভিন্ন অঞ্চলের ঝড়গুলোর নামকরণের জন্য আঞ্চলিক কমিটি গঠন করা হয়। বাংলাদেশ পড়েছে উত্তর ভারত মহাসাগর অঞ্চলে, এই অঞ্চলের দেশগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মায়ানমার, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড এবং ওমান। এই দেশগুলো থেকে অনেকগুলো নাম প্রস্তাব করা হয় এবং পর্যায়ক্রমে ঝড়গুলোর নামকরণ করা হয়। প্রস্তাবিত কিছু নামের স্ক্রীনশট-

সুখের সংবাদ হচ্ছে- বাংলাদেশের দেয়া নামে একটি ঘূর্ণিঝড় আসতে চলেছে যেটির নাম ‘ফণি’। দুঃখের সংবাদ হচ্ছে ঝড়টির ক্ষতিকর প্রভাব বাংলাদেশের উপরও পড়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এটি পহেলা মে দুপুরের দিকে উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করতে পারে। ভারতের NDTV র ওয়েবসাইটে এই ঝড়ের লাইভ আপডেট দেখানো হচ্ছে। ২-৪ মে পশ্চিমবঙ্গের ভ্রমণকারী এবং জেলেদের সমূদ্রে না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

যারা চাচ্ছেন বিসিএস পরীক্ষা ৩ তারিখে না হোক, ফণি তাদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে আসতে পারে।

তথ্যসূত্রঃ Tropical Cyclone Names in the Bay of Bengal and the Arabian Sea(বিশ্ব আবহাওয়া কেন্দ্র) 

 

admin

আমার সম্পর্কে তেমন কিছু বলার নেই। লিখতে পারি না, তাই সবার লেখার জন্য প্ল্যাটফর্ম তৈরির চেষ্টা করছি।

Leave a Reply